পদত্যাগের বক্তব্য বাণিজ্যমন্ত্রীর কথার কথা: ওবায়দুল কাদের।

পদত্যাগ করলে যদি পেঁয়াজের দাম কমে যায় এক সেকেন্ডও লাগবে না মন্ত্রিত্ব ছাড়তে–বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির এই বক্তব্যকে কথার কথা বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বুধবার সচিবালয়ে ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। বাণিজ্যমন্ত্রী গতকাল মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে বলেন, ‘কেউ কেউ আমার পদত্যাগ দাবি করছেন। পদত্যাগ করলে যদি পেঁয়াজের দাম কমে যায় এক সেকেন্ডও লাগবে না মন্ত্রিত্ব ছাড়তে। বাণিজ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে ওবায়দুল কাদের বলেন, দেখুন, এটা তো কথার কথা। যদি গ্যারান্টি থাকত আমি পদত্যাগ করলে পেঁয়াজের দামটা কমে যাবে, সেটা তো কথার কথা। সেটা তো পদত্যাগ করার বিষয় নয়, মন্ত্রী হিসেবে তিনি কথা প্রসঙ্গে হয়তো বলেছেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন যেহেতু পেঁয়াজের দাম বাড়তি, কেউ কেউ তো মন্ত্রীর পদত্যাগও দাবি করে। সেজন্য তিনি বলেছেন, পদত্যাগ করলে যদি সমাধান হয়ে যেত তাহলে আমি এক সেকেন্ডেই পদত্যাগ করতাম। সেটা উনি (বাণিজ্যমন্ত্রী) অযৌক্তিক কিছু বলেননি, এটা কথার কথা বলতেই পারেন,’ যোগ করেন ওবায়দুল কাদের। বাণিজ্য, রেল ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী তাদের দায়িত্ব পালন করতে পারছেন না বা অনেক ক্ষেত্রে ব্যর্থ হয়েছেন- এজন্য তাদের সরিয়ে দেওয়া হতে পারে বলে যে খবর এসেছে তা নিয়ে মন্ত্রিসভার সদস্য কাদের বলেন, একজন মন্ত্রীর কর্মকাণ্ড, পারফরম্যান্স মন্ত্রিসভার দায়িত্ব নয়, এটাকে মূল্যায়ন করা বা মন্ত্রীকে রাখা বা বাদ দেওয়ার।

এটা নিকঙ্কুশভাবে প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার। মন্ত্রীর পারফরম্যান্স যদি খারাপ হয় এবং তাকে তিনি রাখবেন কি রাখবেন না, এটা প্রধানমন্ত্রী ঠিক করতে পারেন। এটা আমার পক্ষে মন্তব্য করা সমীচীন নয়, আমি তো একজন মন্ত্রী। আমি কীভাবে আরেকজন মন্ত্রীর পদত্যাগ চাই বা সরিয়ে ফেলা উচিত- এমন মন্তব্য করবো? অপর এক প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, চাল ও লবণ নিয়ে যে ইস্যুটা সৃষ্টি করা হয়েছিল সেটাতো আর এখন নেই। পেঁয়াজটা এখনও রয়ে গেছে। তবে মৌসুমও এসে যাচ্ছে, আমাদানিও যথেষ্ট। মার্কেট কন্ট্রোল করা দরকার। এখানে অসাধু ব্যবসায়ীরাও রয়েছেন, তারাও কারসাজি করে। সেগুলো নিয়ন্ত্রণ করার জন্য এবং কারসাজিটা যাতে বন্ধ হয় সে ব্যাপারে সরকারও কঠোর অবস্থানে রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *